আজ ২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং; ১০ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ; শরৎকাল

ত্রিশালে খিরু নদীর ভাঙা ব্রিজ দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে চলাচল

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নাজমুস সাকিব, ত্রিশালঃঃ ময়মনসিংহের ত্রিশাল-ফুলবাড়ীয়া সড়কের ত্রিশাল পোড়াবাড়ী বাজারে খিরু নদীর ওপর তিন যুগ আগে নির্মিত স্টিলের ব্রিজটি ভেঙেচুরে মারণফাঁদে পরিণত হয়েছে। জোড়াতালির ব্রিজটি দিয়ে প্রতিদিন জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে হাজার হাজার পথচারী ও যানবাহন। ব্রিজটি মেরামত কিংবা পুনর্নির্মাণের আশ্বাস দিলেও দীর্ঘ দিনেও সে ব্যাপারে কোনো পদক্ষেপ নেই স্থানীয় প্রশাসনের।
জানা যায়, ত্রিশাল থেকে ফুলবাড়ীয়া উপজেলার দক্ষিণাঞ্চলে যাতায়াতের এ সড়কের পোড়াবাড়ী বাজারের মধ্য দিয়ে বয়ে যাওয়া খিরু নদীর ওপর ১৯৮২ সালে ২৪২ ফুট দৈর্ঘ্য ও ১৪ ফুট প্রস্থের এ বেইলি ব্রিজ নির্মাণ করা হয়। নির্মাণের ১০-১২ বছর যেতে না যেতেই ব্রিজের অনেকগুলো পাটাতনে মরিচা পড়ে ভাঙতে শুরু করে। ঝুঁকিপূর্ণ ব্রিজটির ভেঙে যাওয়ায় পাটাতন দীর্ঘ দিন ধরে জোড়াতালি দিয়ে চালানোর ফলে প্রায় প্রতিদিন দুর্ঘটনা ঘটছে। আহত হচ্ছেন অনেকেই। দুর্ঘটনায় পড়ছে যানবাহন। বিকল্প কোনো ব্যবস্থা না থাকায় ঝুঁকিপূর্ণ ব্রিজ দিয়ে চলাচল করতে হচ্ছে পথচারী ও যানবাহনকে। এ ছাড়া এ ব্রিজ দিয়ে ভারী যানবাহন চলাচল নিষিদ্ধ থাকলেও প্রতিদিন গড়ে কয়েক শ’ ভারী যানবাহন চলাচল করে।
স্থানীয়রা জানান, ব্রিজের বিভিন্ন স্থানে ভাঙা থাকার কারণে গত কয়েক বছরে ঘটে যাওয়া ছোট-বড় দুর্ঘটনায় এ পর্যন্ত কয়েক শ’ মানুষ আহত হয়েছেন। অনেকেই পঙ্গু হয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছেন।
সরেজমিনে দেখা যায়, জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ভারী যানবাহনের সাথে চলাচল করছে স্কুল-কলেজের কয়েক হাজার শিক্ষার্থীসহ সাধারণ মানুষ। নদী পারাপার ঝুঁকিমুক্ত করতে ব্রিজটি নতুন করে নির্মাণের দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী।
স্থানীয় শফিকুল ইসলাম জানান, কয়েক বছর আগে ব্রিজ দিয়ে হেঁটে পার হওয়ার সময় পাটাতন ভেঙে নদীতে পড়ে গিয়ে মারাত্মক আহত হন পাশের ফুলবাড়ীয়া উপজেলার আছিম গ্রামের সাখাওয়াত হোসেন। এখন পঙ্গু হয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছেন তিনি।
এ ব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যান আবদুল কদ্দুছ মণ্ডল জানান, একটি নতুন ব্রিজের আবেদন নিয়ে তিনি বিভিন্ন দফতরে দৌড়ঝাঁপ করছেন। চেষ্টা করছেন এলাকার মানুষকে দুর্ভোগ থেকে মুক্তি দেয়ার।
উপজেলা প্রকৌশলী শাহেদ হোসেন জানান, পুরো ব্রিজটি সংস্কারের জন্য জেলা প্রকৌশল অফিসের মাধ্যমে আবেদন করা হয়েছে।

প্রিন্ট করুন

মন্তব্য করুন

সর্বশেষ সংবাদ

শ্রেণীভুক্ত বিজ্ঞাপন

????????

Mymensingh Television

????????

ফেসবুকে আমরা!