বৃহস্পতিবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৮, ০৫:৩৭ পূর্বাহ্ন

“ব্লু হোয়েল” গেম খেলার নিয়ম !

ব্লু হোয়েল গেমের কথা শুনেছিলাম ২০১৫ সালের দিকে । জানতাম এটা একটা মারণ গেম । হতাশ প্রবণদের নিয়ে বাজির গেম এটা ।

মূলত একটা হ্যাকার চক্র এই গেমটি পরিচালনা করে , মগজ ধোলাই করে কন্টোল করে থাকে ভিক্টিমকে ।

কিছুদিন ধরে ব্লু হোয়েল গেমের আলোচনা সবত্র , বিষয়টা ভাইরাল হয়ে গেছে । ব্লু হোয়েল মারণ গেম কিন্তু সেটা আপনার আমার ক্ষেত্রে না যারা জীবন নিয়ে সম্পূর্ণ হতাশ , জীবনে সাফল্যর জন্য কখনো কোন চ্যালেঞ্জ করেননি তারাই মূলত একটা গেম নিয়ে চ্যালেঞ্জ করে জীবন দিচ্ছে ।

 

যদি কখনো ডার্ক ওয়েবে হ্যাকারদের কবলে পড়ে এই গেইমের লিঙ্ক এ ডুকে পড়েন তখন যেভাবে খেলবেন গেইমটি।

সেই জন্য আপনাকে হতে হবে কৌশলী তবেই আপনি খেলতে পারবেন এই গেম । আবারো বলছি এটা হ্যাকারদের একটা গেম, হ্যাকারা অনেক চালাক সেটা জানেন, আপনি যদি আপনাকে প্রটেক্ট করতে পারেন তবে আপনি এই সাহসী গেম টা অবলীলায় চালিয়ে যেতে পারবেন ।

 

প্রথমে আপনি একটা স্মার্ট  ফোন নিবেন, ফোনটি রিসেট দিবেন, ফোনে আপনার একটা ফেক আইডি, ইমেইল লগ ইন করবেন । ব্লো হোয়েল এর লিঙ্ক পেলে খেলা চালিয়ে যাবেন । আপনি যে এই খেলা খেলছেন সেটা আপনার কাছের কয়েকজন কে জানাবেন । আপনি পার্সোনাল ভাবে একটা গ্রুপ তৈ্রি করবেন আপনার বন্ধুদের নিয়ে কখনো কোন বিপদ পরলে যাতে আপনাকে প্রটেক্ট করতে পারে ।

 

প্রতি স্টেপে দক্ষতার সাথে কাজ করবেন , যখন আপনি গেইমটি খেলবেন আশে পাশে আপনার গ্রুপটি সতেচন থাকতে বলবেন । হ্যাকারের চিন্তা আপনাকে বোকা বানানো আর আপনার চিন্তা থাকবে চ্যালেঞ্জ না গেইমের এডমিন কে বোকা বানানো , আপনাকে এমন ভাবে কাজ করতে হবে যেন আপনি গেইমের এডমিনকে ফলো করছেন কিন্তু বাস্তবিক অর্থে মোটেও তা নয় । এডমিন আপনার নিদিষ্ট একটা অংশ দেখতে পারছে কিন্তু তাদের কাছে কোন নিদিষ্ট সিসি ক্যামেরা নেই যে আপনাকে সর্বত্র ফলো করবে । ধরেন আপনাকে বলল রাতে কবরস্থানে যেতে হা যান আপনি তবে সেটা আপনার বন্ধুদের গ্রুপ মিলে । ধরুন আপনাকে বলল হাত কেটে তিমি আকতে আপনার ভাল যে বন্ধুটি ফটোশপের কাজ পারে তাঁর সাহায্য দিন । কৌশলী অবলম্বন করে কাজ করুণ , ধরুন আপনাকে বলছে ড্রাগ নিতে , একটু অভিনয় করুণ যে আপনি ড্রাগ নিচ্ছেন প্রকৃত পক্ষে কিছুই না । সর্বশেষ ধাপে আত্মহত্যা , মগের মুল্লুক নাকি আপনি কোন ভাবেই এডিডেট না, মজা করতেছেন সেখানে আত্মহননের প্রশ্নই আসে না ।

কিছু সাউন্ড , মিউজিকে আপনাকে  হিপনোটাইসিস করতে পারে সেই জন্য আপনার আগ থেকে সেট আপ গ্রুপটা তু আছেই তারা আপনাকে সেইভ করবে । আর আপনাকে ব্রেক মেইল করতে দিন কারণ আপনার ফোনে যে ইনফরমেশন গুলো আছে সেই গুলো ফেইক ।

আপনার লোকেশন জানলেও কেউ রাশিয়া থেকে আপনার পরিবারের ক্ষতি করতে আসবে না , তবু সাবধানতার জন্য লোকাল থানায় একটু ইনফরমেশন দিয়ে রাখতে পারেন ।

 

আর গেম খেলা শেষে ফোন টা আবার রিসেট করে নিবেন । আর এই গেইম ইন্টারনেটে খেলতে হয়। তাই নেট কানেকশন বন্ধ রাখতে পারেন ।

 

নিজের ইচ্ছাশক্তি , বিবেক বুদ্ধি থাকলে আপনি সহজেই এই গেম কোন জটিলতা ছাড়াই খেলতে পারবেন । তবে বলব এটা ইন্টারনেটের অন্ধকার জগতের গেইম , সো এই গেইম না খেলায় উচিৎ । ডার্ক ওয়েবে ইন্টারনেটের বিভিন্ন নেতিবাচক কাজ গুলো হয়ে থাকে ।

 

 

মেহেদী জামান লিজন

সম্পাদক

ময়মনসিংহ ডিভিশন ২৪ ডট কম 

প্রিন্ট করুন
মন্তব্য করুন
শেয়ার করুন:
  • 140
    Shares





©সর্বস্বত্ব ২০১৬-২০২০ সংরক্ষিত