আজ ২১শে আগস্ট, ২০১৮ ইং; ৬ই ভাদ্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ; শরৎকাল

গফরগাঁওয়ের বেগুন যায় সারাদেশে

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে উৎপাদিত বেগুন যাচ্ছে রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশে।  উপজেলার চরআলগী, দত্তের বাজার, টাঙ্গাব ও পাঁচবাগ ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামে শতাধিক চাষি গোল ও লম্বা আকারের বেগুন চাষ করে ঘুরিয়েছেন নিজেদের ভাগ্য। সারাবছরই এখানে চাষ হচ্ছে বেগুন। ফলনও বাম্পার দাবি, কৃষক ও কৃষি বিভাগের।

তারা বলছেন, ঊর্বর জমিরত দো-আঁশ মাটির প্রাচুর্যের কারণে সবজি তথা ফসলের আবাদ বেশি হয়। বর্তমানে উপজেলার চরআলগী ইউনিয়নের নয়াপাড়া, চরমছলন্দ, জিরাতিপাড়া, কাচারীপাড়া, কুড়–তলীপাড়া, বোরাখালী, নিধিয়ারচর ভাটিপাড়া, চরকামারিয়া, চরমছলন্দ উত্তর নয়াপাড়া ও চরআলগী গ্রামে, টাঙ্গাব ইউনিয়নের ব্রাহ্মণখালী, দুবাশিয়া, বারইহাটি ও টাঙ্গাব গ্রামে, পাঁচবাগ ইউনিয়নের চরশাঁখচূড়া, খুরশিদ মহল, গাভীশিমুল গ্রামে এবং দত্তের বাজার ইউনিয়নের প্রত্যন্ত অঞ্চলে ব্যাপকভাবে বেগুন উৎপাদিত হচ্ছে।

উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, চরআলগী,  টাঙ্গাব, ও দত্তের বাজারসহ কয়েকটি ইউনিয়নে বিগত কয়েক বছর ধরেই বেগুনের বাম্পার ফলন হচ্ছে । প্রায় ১৩ কোটি টাকার বেগুন উৎপাদন হয়।

চরআলগী ইউনিয়নের নয়াপাড়া গ্রামের চাষি মাসুদ মিয়া জানান, প্রতিবছর ৫০ শতাংশরও বেশি জমিতে বেগুন চাষ করি। মৌসুমে লাভ হচ্ছে লক্ষাধিক টাকা।

তারমত লাভবান হচ্ছেন, বোরাখালী গ্রামের লাল মিয়া, কাচাড়ীপাড়া গ্রামের খোকন মিয়া, কুড়ইতুলী পাড়া গ্রামের বাহার উদ্দিন, নয়া গ্রামের নূরুল ইসলাম, গিয়াস উদ্দিন মুন্সি, জিরাতিপাড়া গ্রামের আ. রেজ্জাক, চরআলগী ইউনিয়নে মাহতাব উদ্দিন, দুলাল উদ্দিন, জমির উদ্দিন, শাহজাহান, সুলতান, জীবন মিয়া, জিয়ানতসহ অনেকেই।

উপজেল কৃষি কর্মকর্তা ও বাংলাদেশ পরমাণু কৃষি গবেষণা ইন্সস্টিটিউটের কর্মকর্তারাণ জানান, বেগুন চাষে কৃষকদের সার্বিক সহযোগিতা প্রদান করা হয়।

প্রিন্ট করুন

মন্তব্য করুন