আজ ২০শে জুলাই, ২০১৮ ইং; ৫ই শ্রাবণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ; বর্ষাকাল

গোখড়ার আস্তানার সন্ধান ভালুকায়

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

রাজশাহীর এক বাড়ির শয়নকক্ষে ২৮টি এবং অন্য একটি বাড়ির রান্নাঘরে ১২৫টি গোখড়া সাপের পর এবার বিষধর সাপটির একটি আস্তানা খুঁজে পাওয়া গেছে ময়মনসিংহের ভালুকায়। উপজেলার বাশিল গ্রামের কাদির খান নামে এক ব্যক্তির বসত ঘর উদ্ধারের পর ২১ সাপ পিটিয়ে মেরে ফেলা হয়েছে। এই ঘটনায় ওই পরিবার ও আশাপাশে শতাধিক বাড়ির বাসিন্দাদের মাঝে সাপ আতঙ্ক বিরাজ করছে।

স্থানীয়রা জানান, বাশিল গ্রামের কাদির খানের একটি বসত ঘরের সংস্কার কাজ চলছিল। এ অবস্থায় প্রতিদিন কাজ শেষে রাজ মিস্ত্রীরা তাদের কাজের যন্ত্রপাতি গৃহকর্তার ঘরের বারান্দায় রেখে যায়। পরে গতকাল বৃহস্পতিবার  রাজমিস্ত্রী সহযোগী সুজন মিয়া কাজের জন্য জিনিসপত্র আনতে গেলে একটি সাপ চোখে পড়ে। তিনি ও তার সহকর্মী নবী হোসেন ও হাদিস মিয়ার সহযোগিতায় সাপটিকে মেরে ফেলা হয়।

এ সময় বেরিয়ে আসে আরো বেশ কয়েকটি সাপ। এ অবস্থায় ভয়ে রাজমিস্ত্রী শ্রমিকদের চিৎকারে প্রতিবেশীদের সহযোগিতায় লোহার রড ও বাশ দিয়ে পিটিয়ে একে একে ২১ গোখড়া সাপ মারা হয়।

কাদির খান ঢাকাটাইমসকে বলেন, ‘একসাথে এতগুলো সাপ আর কখনো দেখিনি। সব মিলিয়ে ২১টি সাপ মারা হয়েছে। এ ঘটনার পর থেকে লোকজন আতঙ্কে রয়েছে।’

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় জেলার তানোর পৌরসভার ভদ্রখ- মহল্লার কৃষক আক্কাস আলীর রান্না ঘরে পাওয়া যায় ১২৫টি গোখড়া সাপ।

এর আগে মঙ্গলবার রাত ১১টার পর থেকে রাজশাহী মহানগরীর বুধপাড়া মহল্লার বাসিন্দা মাজদার আলীর শোয়ার ঘরে পাওয়া যায় ২৭টি গোখরা। পরে বাড়িটি তল্লাশি চালিয়ে আরও একটি সাপ পাওয়া যায়।
এই দুইটি ঘটনাতেও স্থানীয়রা বিষধর এই সাপগুলোকে পিটিয়ে মেরে ফেলে।

প্রিন্ট করুন

মন্তব্য করুন