আজ ২৩শে জুন, ২০১৮ ইং; ৯ই আষাঢ়, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ; বর্ষাকাল

ময়মনসিংহের হোটেল সিলভার ক্যাসেলে পর্যটক মেলা

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

ময়মনসিংহে শহরের খাগডহরে বিশাল এলাকাজুড়ে আধুনিক দৃষ্টিনন্দন হোটেল সিলভার ক্যাসেল স্পা। ময়মনসিংহে ভ্রমণে এসে ব্রহ্মপুত্র নদের পাড়ে এই হোটেলটিতে অবস্থান করেন অনেকেই। ময়মনসিংহ-মুক্তাগাছা সড়কের খাগডহর এলাকায় এই হোটেলটির মনোরম প্রাকৃতিক দৃশ্য পর্যটকদের আকর্ষণ করছে ।

ঢাকা থেকে সড়কপথে ১২০ কিলোমিটার ও রেলপথে ১২৩ কিলোমিটার দূরত্ব ময়মনসিংহ জেলা হতে সিলভার ক্যাসেল, রিভার প্যালেস (৩৩৮ তালতলা ডোলাদিয়া, খাগডহর, ময়মনসিংহ) খুব কাছেই। শহরের পশ্চিম সীমান্তে নদের মোহনাতে গড়ে ওঠা হোটেলে অটোরিকশা নিয়ে খুব সহজেই চলে আসা যায়।

ব্রহ্মপুত্র নদের এক ধারে ছিমছাম হোটেল সিলভার ক্যাসেল অ্যান্ড স্পা রাতে শোভা বর্ধন করে নানা রঙের রঙিন আলোয়। নিসর্গ উপভোগের দারুণ স্থান এটি। হোটেলটির চারিদিকের প্রাকৃতিক দৃশ্য নজর কাড়ার মতো। সূর্যাস্তের আলো পড়ে নদের ওপর। এ সময় মৃদু হাওয়ার দাপট এক অন্যরকম দোলা দেয় মনে। এখানকার সূর্যাস্ত ও সূর্যোদয়ের দৃশ্য উপভোগ করার মতো।

মহাসড়কের পাশেই অবস্থিত এই হোটেল। এর পেছনেই প্রবাহিত স্থির শান্ত ব্রহ্মপুত্র নদ। যে কাউকে চোখ ধাঁধানো রূপ দেখতে এখানে থামতে হবে।

নদের ওপারে চর জেলখানায় গড়ে উঠছে ওয়েস্টার্ন রিসোর্ট। শান্ত সবুজের মাঝে হারিয়ে যায় মন। নৌকায় ১০০ টাকায় আসা-যাওয়া ভাড়ায় সারাদিন অথবা কিছু সময়ের জন্য অসাধারণ প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপভোগ করা যায়। এখানে রয়েছে ঝুলন্ত ব্রিজ, কুঁড়েঘর, দোতলা ভবন, আড্ডাস্থলসহ সময় কাটানোর মনোরম স্থান। হোটেলটির চারদিকে রুক্ষ্ম প্রকৃতির মাঝে সবুজের দৃশ্য চোখের আরাম এনে দেয়।

সিলভার ক্যাসেল স্পা এর ইনচার্জ নজরুল ইসলাম ঢাকাটাইমসকে জানান, ঈদে পর্যটকের সংখ্যা বেড়েছে। এখানে হোটেলের সুবিধা নিতে চাইলে কমপক্ষে দুই একদিন দিন আগে বুকিং দিতে হয়। এসিসহ প্রতিটি রুমের ভাড়া দুই হাজার থেকে চার হাজার টাকা পর্যন্ত। তবে এখানে গাড়ি পাকিংয়ের সুবিধা থাকলেও খাওয়া-দাওয়ার ব্যবস্থা নেই। খাওয়া-দাওয়ার জন্য যেতে হয় শহরে।

প্রিন্ট করুন

মন্তব্য করুন