আজ ২২শে অক্টোবর, ২০১৮ ইং; ৭ই কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ; হেমন্তকাল

জামালপুরে টাকাসহ মরদেহ উদ্ধার

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

জামালপুরে-টাকাসহ-মরদেহ-উদ্ধার-696x418জামালপুর সদর উপজেলার ইটাইল ইউনিয়নে ব্রহ্মপুত্র নদের পানির নীচে খুঁটিতে বাঁধা মরদেহ উদ্ধার করেছে জামালপুরের পুলিশ। গতকাল ১৬ মে মঙ্গলবার সকালে ব্রহ্মপুত্র নদের পানির নীচে সিমেন্টের খুঁটি বাঁধা আব্দুল হক (৪০) নামের এক ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার করে।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, জামালপুর সদর উপজেলার নরুন্দি ইউনিয়নের মহিশুড়া গ্রামের বাসিন্দা মৃত ইউসুফ আলী ছেলে নিহত আব্দুল হক গত চারদিন ধরে তিনি নিঁখোজ হন।

নিহত আব্দুল হক ইসলামি শ্রমিক আন্দোলনের জামালপুর জেলা শাখার সহসভাপতি পদে দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন। এছাড়া তিনি বেশ ক’বছর সৌদি আরবে চাকরি করে দেশে ফিরে তিনি আরব বাংলাদেশ হজ এজেন্সির একজন জামালপুর প্রতিনিধি (মোয়াল্লেমের) এর দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন।

তার সুবাধে এলাকার হজে গমন ইচ্ছুক ব্যক্তিদের কাছে টাকা নিয়ে এজেন্সিদের মাধ্যমে হজে প্রেরণ করে করতেন। দীর্ঘদিন ধরে তিনি জামালপুর শহরের কাছারিপাড়া এলাকায় পরিবার নিয়ে বসবাস করতেন।

নিহতের বোন জামাই গোলাম রব্বানী জানান, আব্দুল হক গত শুক্রবার রাতে ১০ লাখ টাকাসহ তার এক আত্মীয়কে নিয়ে মোটরসাইকেলে ইটাইল বাজারে যায়।

রাতে তার ওই আত্মীয় টাকাসহ তাকে বাজারে রেখেই মোটরসাইকেল যোগে চলে যান। কিন্তু আব্দুল হক রাতে বাড়ি না ফেরায় পরদিন শনিবার অনেক খোঁজাখুজি পর না পেয়ে পরিবারের পক্ষ থেকে স্থানীয় নরুন্দি পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে একটি সাধারণ ডায়েরি করে।

নরুন্দি তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে দুর্বৃত্তরা মোয়াল্লেম আব্দুল হককে হত্যা করে সিমেন্টের খুঁটির সাথে বেঁধে ব্রহ্মপুত্র নদের পানিতে ডুবিয়ে রেখেছে।

তার সূত্র ধরে পুলিশ গতকাল সকালে ব্রহ্মপুত্র নদ থেকে খুঁটিতে বাঁধা মরদেহ উদ্ধার করে। পরে মরদেহ সুরুত হাল তৈরি করার সময় নিহতের পরনের জাঙ্গিয়া পকেট থেকে ১ লাখ ভেজা টাকা উদ্ধার করে জামালপুর জেনারেল হাসপাতালের ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠায়।

এ দিকে বিভিন্ন নির্ভরযোগ্য সূত্র জানায়, দীর্ঘদিন যাবত ইটাইল খলিল নেতার বাজার নামে খ্যাত বাজারে স্থানীয় একটি ডলার প্রতারকচক্র ডলার বেচাকেনার নামে আনাগোনা ছিল। নিহত মোয়াল্লেম আব্দুল হক ১০লাখ টাকা নিয়ে ইটাইল খলিল নেতার বাজারে ডলার কিনতে গিয়েছিলেন যায়।

পুলিশ ও এলাকাবাসির ধারণা ওই ডলার প্রতারক চক্রটি হয়তো ডলার দেওয়ার নাম করে টাকা নিয়ে তাকে হত্যা করে নদীর পানিতে ডুবিয়ে রেখে চলে যায়।

এব্যাপারে জামালপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাসিমুল ইসলাম মৃত আব্দুল হকের মরদেহ ও তার কাছে থাকা ১ লাখ টাকা উদ্ধারের বিষয়টি সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। অবিলম্বে এই নির্মম হত্যা কাণ্ডের সাথে জড়িতদের চিহ্নিত করে গ্রেফতারের করা হবে বলে জানান।

প্রিন্ট করুন
মন্তব্য করুন