রবিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮, ০৯:২০ পূর্বাহ্ন

জামালপুরে হচ্ছে নতুন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়

ম্যাপ: জামালপুর

জামালপুর প্রতিনিধি :

ম্যাপ: জামালপুর

ম্যাপ: জামালপুর

অবশেষে স্বপ্ন পূরণ হচ্ছে জামালপুরবাসীর। দীর্ঘদিনের দাবি একটি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠিত হচ্ছে ময়মনসিংহ বিভাগের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ জেলা জামালপুরে। জামালপুরের কিংবদন্তি নেতা বস্ত্র ও পাট প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজমের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় জামালপুরে একটি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠায় প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন পাওয়া গেছে।

 

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের পরিচালক আবুল কালাম আজাদ স্বাক্ষরিত এক পত্রে জানা যায়, বস্ত্র ও পাট প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম এমপি’র আবেদনের প্রেক্ষিতে প্রধানমন্ত্রী জামালপুরের শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব ফিসারিজ কলেজকে ‘বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়’ নামে একটি বিশেষায়িত পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে স্থাপনের নীতিগত সদয় সম্মতি প্রদান করেছেন।

 

উল্লেখ্য, জামালপুর, নেত্রকোণা, শেরপুর, কুড়িগ্রাম ও গাইবান্ধা জেলার সমন্বয়ে জামালপুরে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপিত হচ্ছে।

 

এদিকে, এই খবর জামালপুরে আসার সাথে সাথেই উল্লাসে ফেটে পড়েছেন জামালপুরের আপামর জনসাধারণ।

 

তাঁদের প্রত্যাশা, সুদীর্ঘ কালের উচ্চ শিক্ষা বঞ্চনার আঁধার কাটিয়ে এবার আলোকিত এক জামালপুর গড়ে তোলার পথে এই খবর শুধু শুভ ইঙ্গিতই বহন করছে না আগামী দিনে গোটা জামালপুরসহ পার্শ্ববর্তি জেলার, প্রায় ৬০ লাখ মানুষের আশা আকাঙ্খার প্রতীক হিসেবে বিবেচিত হবে।

 

তারা বলছেন, স্বাধীনতা পরবর্তী শত সীমাবদ্ধতার পরেও দেশের অন্যান্য জেলায় উন্নয়নের ছোঁয়া লাগলেও নীতিনির্ধারকদের বিমাতাসূলভ আচরণে জামালপুরবাসী আশাব্যাঞ্জক উন্নয়ন থেকে বরাবরই বঞ্চিত হয়ে আসছিলেন। যোগ্য নেতৃত্বের অভাব এবং এই জনপদ থেকে উঠে আসা জাতীয় পর্যায়ে প্রতিষ্ঠিত ব্যক্তি বা মন্ত্রী, এমপি এবং আমলারা জামালপুর নিয়ে ভাবার বদলে নিজেদের আখের গোছানোর চিন্তা মগ্ন থেকেছেন।

মির্জা আজম

মির্জা আজম

সরেজমিনে তারা আরও বলেন, এবার সময় হয়েছে, জামালপুরবাসী পেয়েছে তার যোগ্য সন্তানকে। যে মা, মাটি ও মানুষের দায়বদ্ধতা পূরণে শতভাগ নিজেকে নিবেদন করার দৃষ্টান্ত স্থাপন করে চলেছে। সে একজন মির্জা আজম। যার ব্যক্তিত্ব ও দেশপ্রেম নিয়ে তার শত্রুরাও সমালোচনা করার সুযোগ পায় না।

 

এছাড়াও, বর্তমান সরকার তৃতীয়বারের মতো ক্ষমতায় এসে এই যোগ্য মানুষটিকে মন্ত্রী পরিষদে স্থান দেয়ার পর তিনি শুধু জামালপুরেই নয় গোটা দেশবাসীর কাছে ক্রমশই নয়নের মণি হয়ে উঠছেন। পাটের হারানো গৌরব ফিরিয়ে আনা, বন্ধ হয়ে যাওয়া বস্ত্র ও পাটকল চালু করাসহ নানামূখী উন্নয়ন কর্মকান্ডে মির্জা আজম নিরন্তর কাজ করে যাচ্ছেন।

 

উল্লেখ্য, মির্জা আজমের বদন্যতায় ইতিমধ্যে জামালপুরে অর্থনৈতিক জোন, মেডিকেল কলেজ, টেক্সটাইল কলেজ, ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ, বাইপাস সড়ক, লিংক রোড, সাংস্কৃতিক পল্লী, ডায়াবেটিক হাসপাতাল,১০০ মেগা ওয়াট সম্পন্ন বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনের কাজ দ্রুতগতিতে বাস্তবায়ন হচ্ছে।

প্রিন্ট করুন
মন্তব্য করুন
শেয়ার করুন:
  • 3.7K
    Shares





©সর্বস্বত্ব ২০১৬-২০২০ সংরক্ষিত