রবিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮, ০৯:২৭ পূর্বাহ্ন

ধর্মঘটের প্রভাব পড়েছে জাবিতেও

ধর্মঘটে বিধ্বস্ত জনজীবন

আট দফা দাবিতে সারা দেশে পরিবহন শ্রমিকদের ডাকা ধর্মঘটের প্রভাব পড়েছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় সহ দেশের অন্যান্য শিক্ষাক্ষেত্রেও। এতে চরম দুর্ভোগে পড়েছেন স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। বাস কিংবা অন্যান্য পরিবহন রাস্তায় না থাকায় তারা কেউই ক্লাসে যেতে পারেননি কিংবা অনেক ক্ষেত্রে কর্তৃপক্ষ ক্লাসই বাতিল করতে বাধ্য হয়েছেন।

এ ব্যাপারে কথা হচ্ছিলো জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগের শিক্ষার্থী নাফিস আহম্মেদের সঙ্গে। তিনি বলেন,

“নিজস্ব বাসা ঢাকায় হওয়াতে প্রতিদিন যাওয়া-আসা করেই ক্লাস করি।  আমার মত অনেকেই ঢাকার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে গিয়ে জাবিতে ক্লাস করেন। কিন্তু মাঝেমধ্যেই এ ধরনের আন্দোলন-ধর্মঘটে আমাদেরকে চরম প্রতিকূলতার মাঝে পড়তে হয়। গতকাল রবিবারেও এই ধর্মঘটের কারণে শিক্ষকরা আমাদের ক্লাস অফ রাখতে বাধ্য হয়েছেন। আজকেও আমাদের কোনো ক্লাস হয়নি। এ ধরনের অনিচ্ছাকৃত শিডিউল চেঞ্জের কারণেই পরে আমাদেরকে পড়তে হয় সেশন জটে।”

একই রকমভাবে কথা হচ্ছিলো জাবিতে নাফিসের সঙ্গে অধ্যয়নরত একই বিভাগের ফাহমিদা আফরিন সিথির সঙ্গে। তিনি অবশ্য সাভারেই বাড়ী বলে জানালেন। তিনি বলেন,

“সকাল থেকে বাস-সিএনজি কিছুই না পাওয়াতে প্রায় এক ঘন্টা রাস্তায় দাঁড়িয়ে থেকে বাড়ী ফিরে আসি। এসে শুনলাম ক্লাসই বাতিল করা হয়েছে। এ ধরনের অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা একদমই কাম্য নয়। এর বিরূপ প্রভাব ফেলে আমাদের পড়ালেখার উপর এবং সর্বোপরি সেশন জটের তৈরী হয়।”

পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে জানা যায় জাবি ক্যাম্পাসেই আরও অনেকগুলো বিভাগের ক্লাস হবার কথা থাকলেও পরবর্তীতে পরিস্থিতি বিবেচনায় আর ক্লাস হয়নি।

উল্লেখ্য, অতি সম্প্রতি সংসদে পাস হওয়া ‘সড়ক পরিবহন আইন ২০১৮’-এর কয়েকটি ধারা সংশোধনসহ আট দফা দাবিতে রোববার সকাল ৬টা থেকে শুরু হওয়া এই ধর্মঘট চলবে মঙ্গলবার সকাল ৬টা পর্যন্ত। এই বেঁধে দেওয়া সময়ের মধ্যে দাবি মানা না হলে লাগাতার ধর্মঘটেরও ঘোষণা দিয়েছে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন।

প্রিন্ট করুন

মন্তব্য করুন
শেয়ার করুন:
  • 12
    Shares





©সর্বস্বত্ব ২০১৬-২০২০ সংরক্ষিত