শুক্রবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৮, ০৫:০৭ পূর্বাহ্ন

জ্ঞানভিত্তিক রাষ্ট্র বিনির্মাণে ভূমিকা রাখাই আমার প্রাথমিক কর্তব্য : এম কে ফরাজী

জ্ঞানভিত্তিক রাষ্ট্র বিনির্মাণে ভূমিকা রাখাই আমার প্রাথমিক কর্তব্য : এম কে ফরাজী

 

মোঃ মেহেদী কাউসার ফরাজী (এম কে ফরাজী) ১৯৯৫ সালে ময়মনসিংহ জেলার ফুলবাড়ীয়া উপজেলায় জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ২০০৬ সালে নিজবাখাইল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে পঞ্চম শ্রেণীর প্রাথমিক বৃত্তি পরীক্ষা ও ২০০৯ সালে পোড়াবাড়ী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে অষ্টম শ্রেণীর জুনিয়র বৃত্তি পরীক্ষায় ট্যালেন্টপুলে বৃত্তি লাভ করেন ও উভয় পরীক্ষায় ত্রিশাল উপজেলায় তৃতীয় স্থান লাভ করেন। এরপর কৃতিত্বের সাথে ময়মনসিংহ জিলা স্কুল থেকে ২০১২ সালে মাধ্যমিক ও শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম কলেজ থেকে ২০১৪ সালে উচ্চমাধ্যমিক পাশ করে ২০১৫ সালে ভর্তি হন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে। সেখানকার পড়াশোনা অসমাপ্ত রেখেই ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হয়ে বর্তমানে সেখানেই অধ্যয়নরত আছেন।

এম কে ফরাজী ২০১১ সালে দৈনিক বাংলাদেশ প্রতিদিনের পাঠক সংগঠন “বন্ধু প্রতিদিন”-এর ময়মনসিংহ জেলা শাখার সভাপতি নির্বাচিত হন। তিনি ময়মনসিংহ জেলা বঙ্গবন্ধু শিশু একাডেমীর সাহিত্য ও ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক এবং ফুলবাড়ীয়া উপজেলা শাখার প্রতিষ্ঠাতা সদস্য সচিব ছিলেন ঢাকা ইউনিভার্সিটি স্টুডেন্টস এসোসিয়েশন অফ ফুলবাড়ীয়া (ডিইউসেফ)’র কোষাধ্যক্ষ এবং ময়মনসিংহ বিভাগীয় উন্নয়ন পরিষদের প্রচার সম্পাদক হিসেবেও তিনি দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি ভারতের বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয় আন্তর্জাতিক ছাত্র সংসদের যুগ্ম-সম্পাদক।

এছাড়াও তিনি বাংলাদেশ স্টাডি ফোরামের (বিডিএসএফ) একজন কর্মী। শিক্ষা ও সমাজসেবার ব্রত নিয়ে ২০১৫ সালে প্রতিষ্ঠা করেছেন শিখরী ফাউন্ডেশন, যা অসহায় মুক্তিযোদ্ধাদের সহায়তা, দুঃস্থদের সহায়তা ও নিরক্ষরতা দূরীকরণে বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়ে সারাদেশে ব্যপক জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে।

রাজনৈতিক জীবনে মেহেদী কাউসার ফরাজী মধ্যপন্থী আদর্শের অনুসারী, গণতন্ত্রের মানসপুত্র হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী ও বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শিক কর্মী। কিশোর বয়স থেকেই বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের ভ্রাতৃপ্রতিম ছাত্র সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কর্মী হিসেবে নানা কর্মসূচীতে প্রত্যক্ষভাবে অংশ নেন।

তিনি ২০১৩ সালে যুদ্ধাপরাধী ও রাজাকারের শাস্তির দাবিতে শাহবাগের গণজাগরণ মঞ্চের সাথে একাত্মতা ঘোষণা করে ময়মনসিংহ শহরে বিভিন্ন প্রগতিশীল ছাত্র সংগঠনের সাথে গণজাগরণের সংগঠক হিসেবে ভূমিকা পালন করেন। ২০১৫ সালে ময়মনসিংহের শীর্ষ রাজাকার এম এ হান্নানের বিরুদ্ধে আন্দোলন গড়ে তুলে তাকে গ্রেফতার ও বিচারের মুখোমুখি করতে ভূমিকা পালন করেন। ২০১৪ সালের জাতীয় নির্বাচন পরবর্তী বিএনপি-জামায়াতের সহিংস কর্মকান্ডের প্রতিবাদে সরব ছিলেন। ২০১৬ সালের স্থানীয় সরকার নির্বাচনে আওয়ামীলীগের প্রার্থীর পক্ষে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন এবং নৌকার বিজয় নিশ্চিত করেন।

তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সলিমুল্লাহ মুসলিম হল শাখা ছাত্রলীগের একজন কর্মী ছিলেন। বর্তমানে এম কে ফরাজী ভারতে অধ্যয়নরত লক্ষাধিক বাংলাদেশী শিক্ষার্থীদের মাঝে বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা সমুন্নত রাখার স্বার্থে দেশরত্ন শেখ হাসিনার কর্মী হিসেবে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, ভারত শাখা’র সংগঠন ও এর কার্যক্রম চালিয়ে নিতে সদা সোচ্চার ভূমিকা পালন করছেন।

মেহেদী কাউসার ফরাজী সামাজিক-রাজনৈতিক কাজের পাশাপাশি সাংবাদিকতা এবং লেখালেখিতেও নিজের প্রতিভার স্বাক্ষর রেখে চলেছেন। তিনি ২০১১-২০১৩ মেয়াদে বিজয়বার্তা২৪.কমের ময়মনসিংহ জেলা প্রতিনিধি ছিলেন। এরপর ২০১৩-২০১৬ মেয়াদে অনলাইন অপরাধ সংবাদ পত্রিকার নির্বাহী সম্পাদক হিসেবে কাজ করেন। ময়মনসিংহের জনপ্রিয় পত্রিকা দৈনিক ময়মনসিংহ প্রতিদিনের সাথেও তিনি যুক্ত ছিলেন। তিনি বাংলাদেশের প্রথম বিভাগভিত্তিক নিউজপোর্টাল ময়মনসিংহ ডিভিশন ২৪ পত্রিকার সম্পাদক ছিলেন, বর্তমানে পত্রিকাটির প্রকাশক হিসেবে দায়িত্বরত আছেন।

এছাড়াও প্রায় এক দশক ধরে মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের লেখক হিসেবে দেশবিরোধী শক্তির অপপ্রচারের বিরুদ্ধে সোচ্চার ভূমিকা পালন করছেন। তার বিশ্লেষণী-রাজনৈতিক লেখাসমূহের স্বতন্ত্র স্টাইল যথেষ্ট পাঠকপ্রিয়তা পেয়েছে। তিনি পড়তে ও চিন্তা করতে ভালবাসেন। এম কে ফরাজী জ্ঞানভিত্তিক রাষ্ট্র বিনির্মাণে ভূমিকা রাখাকে তার প্রাথমিক কর্তব্য বলে মনে করেন। সেজন্য ২০১৬ সালের ২২ শে মে নিজ গ্রামে প্রতিষ্ঠা করেছেন গ্রাম পাঠাগার জঙ্গলবাড়ী বাতিঘর। তার প্রতিষ্ঠিত এই বাতিঘর মডেল বোদ্ধামহলে ব্যপক প্রশংসা কুড়িয়েছে।

প্রিন্ট করুন
মন্তব্য করুন
শেয়ার করুন:
  • 24
    Shares





©সর্বস্বত্ব ২০১৬-২০২০ সংরক্ষিত